Saturday, July 2, 2022

সুচির তীব্র নিন্দায় মার্কিন সিনেটের ১০ সদস্য

কূটনৈতিক রিপোর্টার

আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে রোহিঙ্গা গণহত্যার দায়ে অভিযুক্ত মিয়ানমার সেনাদের পক্ষে ওকালতি করা দেশটির স্টেট কাউন্সেলর অং সান সুচির প্রতি তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন মার্কিন সিনেটের রিপাবলিকান   ও ডেমোক্রেট দলের ১০ সদস্য। তারা মনে করেন, রোহিঙ্গা এবং অন্য সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ব্যাপক নৃশংসতার জন্য অভিযুক্ত সেনাবাহিনীর পক্ষে সাফাই গেয়ে সুচি আন্তর্জাতিক সমপ্রদায়ের কাছে তার নিজের যে অবশিষ্ট ভাবমূর্তিটুকুও ঝুঁকিতে ফেলছেন। মার্কিন সিনেট সদস্যরা আইসিজেকে পুরোপুরি সমর্থনের জন্য সুচির প্রতি আহ্বান জানান।  নেদারল্যান্ডস্থ বিচার আদালতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গাম্বিয়ার দায়ের করা মামলার শুনানি শুরুর দিনে সুচির উদ্দেশ্যে লেখা চিঠিতে মার্কিন সিনেটররা ২০১০ সালে অন্তরীণ থেকে সুচির মুক্তি, পূর্ণাঙ্গ গণতন্ত্রের পথে উত্তরণের লক্ষ্যে দেশটির ২০১৫ সালের নির্বাচন এবং একটি গণতান্ত্রিক, অংশগ্রহণমূলক ও সমৃদ্ধ মিয়ানমারের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের আকাঙ্ক্ষার বিষয়গুলো উল্লেখ করেন। তারা লিখেন, আমরা এটা বুঝি এ ধরনের উত্তরণ সহজ হয়েছে এমন নজির খুবই কম। যখন সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে বড় ধরনের চ্যালেঞ্জ থাকে। তবে জটিলতা  কোনোভাবেই অজুহাত হতে পারে না। আপনি যেভাবে ২০১৭ সালের নিষ্ঠুর ও তথাকথিত ‘শুদ্ধি অভিযান’ নামে অভিহিত অভিযান সামাল দিয়েছেন তা মোটেই গ্রহণযোগ্য নয়। ওই অভিযানে হাজার হাজার রোহিঙ্গা প্রাণ হারিয়েছেন ও ৭ লাখ ৪০ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়েছেন।

গণহত্যা সনদ অনুযায়ী আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে (আইসিজে) গাম্বিয়ার দায়ের করা মামলায় আপনি নেতৃত্ব দিচ্ছেন শুনে আমরা আরো হতাশ হয়েছি। জাতিসংঘের তথ্যানুসন্ধান মিশন যখন মিয়ানমারের সেনাদের বিরুদ্ধে ‘গণহত্যার কর্মকাণ্ডে’ অংশ  নেয়ার অভিযোগ করেছে সে সময় সেনাবাহিনীর পক্ষে আপনার অবস্থানে আমরা উদ্বিগ্ন। মার্কিন সিনেটররা চিঠিতে বলেন, আমরা আইসিজেকে পুরোপুরি সমর্থনের জন্য আপনার প্রতি আহ্বান জানাই। আপনার সরকারের অবশ্যই জাতিসংঘের স্বাধীন তদন্ত মিশনকে পুরোপুরি এবং অবারিতভাবে সমগ্র মিয়ানমারে যাওয়ার সুযোগ  দেয়া উচিত। যাতে করে ওই মিশনের সদস্যরা আন্তর্জাতিক আইন অনুসারে কোনো অপরাধ এবং মানবাধিকার ও নির্যাতনের অভিযোগের তদন্ত করতে পারেন। মার্কিন সিনেটের প্রতিনিধিরা মনে করেন, গুরুত্বপূর্ণ এই সময়ে এসে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আপনি মিয়ানমারের রোহিঙ্গা ও অন্যান্য সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর মানবাধিকার সুরক্ষার সিদ্ধান্ত নিলে আমরা আপনাকে সমর্থনের জন্য তৈরি আছি। কিন্তু এটা করতে ব্যর্থ হলে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীকে অন্যায়ের জন্য জবাবদিহির আওতায় আনতে আমরা যুক্তরাষ্ট্রের কূটনৈতিক শক্তির প্রয়োগ করে যাবো। মিয়ানমারকে সামনে এগিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে গণতান্ত্রিক, মানবাধিকারের প্রতি শ্রদ্ধাশীল এবং সবার অংশগ্রহণই একমাত্র পথ। চিঠিতে সই করা সিনেটররা হলেন- রিপাবলিকান দলের মার্শা ব্ল্যাকবার্ন, টড ইয়াং,  ডেমোক্রেট দলের ক্রিস ভ্যান হলেন, রিচার্ড ডারবিন, ব্রায়ান  শোয়াটজ, ট্যামি বল্ডউইন,  জেফ্রি মার্কলে, রবাট ক্যাসি,  বেঞ্জামিন কার্ডিন ও রন ওয়াইডেন।

Related Articles

পুনর্গঠিত হলো বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগ

সভাপতি আলহাজ্জ্ব ফেরদৌস স্বাধীন ফিরোজ : সাধারণ সম্পাদক এড. মো: ফারুক উজ্জামান ভূইয়া টিপু আকাশ বাবু:বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একটি রাজনৈতিক সহযোগী সংগঠন মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক স্বাধীন...

Rajpath Bichtra E-Paper: 20/10/2021

Rajpath Bichtra E-Paper: 20/10/2021

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

22,042FansLike
0FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles

পুনর্গঠিত হলো বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগ

সভাপতি আলহাজ্জ্ব ফেরদৌস স্বাধীন ফিরোজ : সাধারণ সম্পাদক এড. মো: ফারুক উজ্জামান ভূইয়া টিপু আকাশ বাবু:বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একটি রাজনৈতিক সহযোগী সংগঠন মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক স্বাধীন...

Rajpath Bichtra E-Paper: 20/10/2021

Rajpath Bichtra E-Paper: 20/10/2021

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের ৫৭তম বিবাহ বার্ষিকী আজ

আজ (৪ অক্টোবর) বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের ৫৭তম বিবাহ বার্ষিকী। ১৯৬৪ সালে আজকের এই দিনে রাশিদা খানমের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন...

‘আইএমইডি’র নিবিড় পরিবীক্ষণ প্রতিবেদন করোনা দূর্যোগেও ব্যাপক সাফল্য পেয়েছে ‘জলাশয় সংস্কারের মাধ্যমে মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্প’

তিন দশকে দেশে মাছের উৎপাদন বেড়েছে ২৫ গুণজাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৩ সালে গণভবন লেকে আনুষ্ঠানিকভাবে মাছের পোনা অবমুক্ত করে মৎস্য চাষকে...