Wednesday, December 1, 2021

শেখ হাসিনার উপর হামলার নেতৃত্বদানকারী ছাত্রদল ক্যাডার মহিববুল্লাহ এখন মির্জাগঞ্জ থানার ওসি!


নিজস্ব প্রতিবেদক :

২০০১ সালে তালতলীর বগী বাজারে শেখ হাসিনার উপর হামলার নেতৃত্বদানকারী ছাত্রদল ক্যাডার মহিববুল্লাহ এখন পটুয়াখালির মির্জাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ। বিষয়টি নিয়ে যেমন চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে তেমনি ওই এলাকার মানুষের মনে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।
অনুসন্ধানে জানা যায় এটি ২০০১ সালের ঘটনা। ওই বছর জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমতলী-তালতলীর (বরগুনা-৩) আসন থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছিলেন সাবেক সাংসদ মজিবর রহমান তালুকদার। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে নির্বাচনী জনসভায় স্ট্রোক করে ৩০ আগষ্ট মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি। নির্বাচনে দেখা দেয় প্রার্থীশূন্যতা।
রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে আওয়ামী লীগের সর্বোচ্চ হেভিওয়েট প্রার্থী হিসেবে সে সময় বরগুনা-৩ আসনে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নেন জননেত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নিরঙ্কুশ বিজয় নিশ্চিত করতে ২১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার তালতলী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে নির্বাচনী জনসভার আয়োজন করা হয়। সড়ক ব্যবস্থা অনুন্নত থাকায় জনসভার উদ্দেশ্যে নদী পথে স্পীডবোট যোগে রওনা দেন জননেত্রী শেখ হাসিনা।
বাজারের দিন থাকায় ওই দিন তালতলীর বগী বাজারের অনেক মানুষ পেটের দায়ে যেতে পারেনি জনসভাস্থলে। কিন্তু জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যাকে একনজর দেখতে বগী বাজারের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া পায়রা নদীর পাড়ে ভিড় জমায় হাজারো উৎসুক মানুষ। সেসময় বরগুনা-৩ আসন থেকে বিএনপি নির্বাচন না করায় সমর্থন জানানো হয় জাতীয় পার্টির প্রার্থী মতিয়ার রহমান তালুকদারকে। ওই দিন জাতীয় পার্টির নির্বাচনী পথসভা চলছিল সেই বগী বাজারের পায়রা নদীর পাড়েই। জননেত্রী শেখ হাসিনার স্পীডবোটটি যখন বগী বাজারবাসীর চোখের সামনে আসে আবেগে আপ্লুুত মানুষরা তখন দূর থেকে গামছা নাড়িয়ে তাদের নেত্রীকে পাড়ে আসার আহবান জানায়। সফরসঙ্গীদের বাধা উপেক্ষা করে আমজনতার ডাকে সাড়া দেন জননেত্রী শেখ হাসিনা।
তাঁর নির্দেশে বহনকারী স্পীডবোটটি মাঝ নদী থেকে পূর্ব পাড়ের দিকে চলতে শুরু করে। জননেত্রী শেখ হাসিনার এই ভালোবাসা দেখে আনন্দে উল্লাস শুরু করে বগীবাজারবাসী। কিন্তু আমজনতার সেই আনন্দে হঠাৎ নেমে আসে অন্ধকারের কালোছায়া। এমন অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত ছিলনা কেউই। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা তালতলী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে নির্বাচনী জনসভায় নেত্রীর অপেক্ষায়, আর এই সুযোগকে কাজে লাগায় হামলাকারীরা। জননেত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী স্পীডবোটটি যখন নদীর পাড়ের কাছাকাছি হয় ঠিক তখনই জাতীয় পার্টির নির্বাচনী সমাবেশের মঞ্চ থেকে প্রতিরোধ গড়ে তোলার ঘোষণা দেয়া হয়। মঞ্চে সঞ্চালক হিসেবে ন্যাক্কারজনক এ ঘোষণা দেন তৎকালীন তালতলী থানা ছাত্রদলের আহবায়ক মো: মহিববুল্লাহ।


মঞ্চ থেকে ঘোষণা আসার সাথে সাথে জাতীয় পার্টির ব্যানারে জামায়াত, বিএনপি ও ইসলামী ঐক্যজোটের নেতাকর্মীরা তান্ডব চালানো শুরু করে। জননেত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে লাঙ্গল মার্কা ও উষ্কানিমূলক সেøাগান দিতে থাকে তারা। এরপর পানিতে নেমে জননেত্রী শেখ হাসিনার স্পীডবোট লক্ষ্য করে মহিববুল্লাহর নেতৃত্বে লাঙ্গল হাতে চালানো হয় হামলা। সেই বিভীষিকাময় স্মৃতি আজো তাড়া করে বেড়ায় ওই অঞ্চলের মানুষদের।
ক্ষমতায় আওয়ামী লীগ সরকার, কিন্তু তবুও সেই হামলার বিষয়ে কথা বলতে ভয় ওই এলাকার মানুষ। কারণ সেই হামলায় নেতৃত্বদানকারী ছাত্রদল ক্যাডার মহিববুল্লাহ এখন অনেক ক্ষমতাধর। তিনি এখন মির্জাগঞ্জ থানার ওসি। আওয়ামী লীগের বড় বড় নেতা এখন তার পকেটে। আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগ নেতাদেরকে ম্যানেজ করে ‘ছাত্রজীবনে তিনি ছাত্রলীগের সদস্য ছিলেন’ এরকম সার্টিফিকেট বানিয়ে এখন তিনি সবসময় পকেটেই রাখেন। কেউ তার আগের কমকা-ের নিয়ে প্রশ্ন করলে পকেট থেকে সেইসব প্রত্যয়নপত্র বের করে দেখান।
সেই হামলার একজন প্রত্যক্ষদর্শীর নাম আমিনুল হক। তিনি পুরো ঘটনা খুব কাছ থেকে দেখেছেন। তিনি জানান, তার শখের একটি ক্যামেরা ছিল। সেই ক্যামেরায় জননেত্রী শেখ হাসিনার ছবি তুলতে নদী পাড়ে ছুটে গিয়েছিলেন তিনি। সে সময় মঞ্চে সঞ্চালণার দায়িত্বে থাকা ছাত্রদলের মহিববুল্লাহর মাথায় একটি কাপড় বাঁধা দেখেছিলেন তিনি। তার ভাষায়, জননেত্রী শেখ হাসিনা যখন নদীর পাড়ের কাছে আসেন তখন মহিববুল্লাহর নেতৃত্বে উষ্কানিমূলক সেøাগান ধরে তাদের কিছু লোকজন। এরপর তারা মিছিল নিয়ে শেখ হাসিনার দিকে এগিয়ে যায় এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার উপর হামলা করার জন্য পানিতে নেমে পড়ে মহিববুল্লাহ ও তার লোকজন। বোট লক্ষ্য করে লাঙ্গল ও লগি দিয়ে হামলা চালায় তারা। এসময় সোবহান মুন্সী নামে ইসলামী ঐক্যজোট নেতাও লাঙ্গল হাতে হামলা চালায়। আমিনুল হক জানান, জননেত্রী শেখ হাসিনাকে মারতে তারা মরিয়া হয়ে পানিতে নেমেছিল এবং হামলাও চালিয়েছিল। তবে তাদের হামলা থেকে প্রধানমন্ত্রীকে বাঁচাতে আওয়ামী লীগের অনেকেই নদীতে ঝাঁপ দিয়েছিল সেদিন। তবে শতচেষ্টা করেও মহিববুল্লাহ ও তার সাঙ্গ পাঙ্গরা কোন ক্ষতি করতে পারেনি। দ্রুতগতিতে স্থান ত্যাগ করে শেখ হাসিনাকে বহনকারী স্পীডবোটটি। অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যান জননেত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন ‘মহিববুল্লাহ শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টা করেও আজ মির্জাগঞ্জ থানা ওসির দায়িত্ব পালন করছেন কিভাবে সকলের মাঝে ঘুরেফিরে একই প্রশ্ন।
আরেকজন প্রত্যক্ষদর্শী অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক তারাকুন্ড ব্যাপারী। ওই সময়ে বগীবাজারে ছিলেন তিনি। জননেত্রী শেখ হাসিনাকে একনজর দেখতে অন্য সবার মতো তিনিও যান। তিনি বলেন, স্পীড বোটটি কাছাকাছি আসলে হামলাকারীরা লাঙ্গলের সেøøাগান দিতে দিতে জননেত্রী শেখ হাসিনার দিকে লাঙ্গল ছুঁড়ে মারতে থাকে।
সেদিনের সেই হামলা থেকে বেঁচে গিয়ে নির্ধারিত সময়ে তালতলী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে জনসভায় যোগ দেন জননেত্রী শেখ হাসিনা। তবে হামলার বিষয়ে নেতাকর্মীদের কিছুই বুঝতে দেননি তিনি। সফলভাবে শেষ করেছিলেন লাখো আমজনতার নির্বাচনী জনসভা। সভা শেষে এলাকায় ফিরে মুজিব আদর্শের সৈনিকরা জানতে পারেন বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার উপর মহিববুল্লাহর নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়েছে।
ক্ষোভের আগুন ছড়িয়ে পড়ে পুরো বরগুনায়। তাৎক্ষণিকভাবে ওই এলাকায় প্রতিবাদ সভা ও মিছিলের আয়োজন করা হয়। বর্তমান তালতলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি জাকির হোসেন চুন্নু মাষ্টার, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক হাওলাদার, ছোটবগি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মজিবুর রহমান বিশ্বাস, সহ সভাপতি জিন্নাত সিকদার, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল হক, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সবুজ তালুকদার, বশির উদ্দিনসহ সর্বস্তরের জনসাধারণ প্রতিবাদ জানাতে অংশ নেন ওই প্রতিবাদ সভায়। সভা থেকে পরদিন হরতাল পালনের ঘোষণা দেয়া হয়। জনগণের স্বতস্ফূর্ত অংশগ্রহণে পালিত হয় সেই হরতাল কর্মসূচিও।
সেই হামলার প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন ‘নির্বাচনী জনসভা শেষে এলাকায় ফিরে এ ঘটনা শোনার পর আন্দোলন-সংগ্রাম করেছি ঠিকই, তবে দোষীদের উচিত জবাব দিতে পারিনি আজও। হামলার নেপথ্যের নায়ক মহিববুল্লাহ মির্জাগঞ্জ থানার ওসি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে কিভাবে? তালতলী উপজেলা আলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক হাওলাদার বলেন, নেতাকর্মীদের অনুপস্থিতিতে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টা করা হয়। মহিববুল্লাহর নেতৃত্বে হামলা হয়। তিনি আরো বলেন ‘আজকে আমার লজ্জা লাগে, যে ব্যক্তি শেখ হাসিনাকে হামলার নেতৃত্ব দিয়েছে সে কিভাবে প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকে এই প্রশ্ন রেখে গেলাম স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আইজিপি মহোদয়ের কাছে ? তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি কামনা করছি।
তৎকালীন তালতলী থানা ছাত্রদলের আহবায়ক ও বর্তমানে মির্জাগঞ্জ থানার ওসি মহিববুল্লাহর দাদা নূর মোহাম্মদ মুন্সী ছিলেন মুক্তিযুদ্ধকালীন শান্তি কমিটির সক্রিয় সদস্য। রাজাকার দাদার পথ ধরে মহিববুল্লাহও অত্যাচার নির্যাতন চালাতো হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর। তাদের খাল দখল করে জোরপূর্বক মাছ চাষ করতেন তিনি।
পরবর্তীতে বিএনপি ক্ষমতায় আসার পর শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টার পুরষ্কারস্বরূপ ২০০৬ সালে তৎকালীন সাংসদ মতিয়র রহমান তালুকদার কুখ্যাত রাজাকার নূর মোহাম্মদ মুন্সীর নাতি মহিববুল্লাহকে উপ-পুলিশ পরিদর্শক পদে চাকরি দেন। এরপর ধীরে ধীরে বিএনপি-জামায়াতপন্থী পুলিশ অফিসারদের মোটা অঙ্কের টাকা দিয়ে ওসি পদে পদোন্নতি পেয়ে যান মহিববুল্লাহ। ওসি মহিববুল্লাহর রয়েছে বহুতল ভবন, গাড়ি, নামে বেনামে অঢেল সম্পত্তি। এছাড়া মহিববুল্লাহর ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও রয়েছে অনেক রসালো গল্প। তার পরকীয়া পেমের কারণে প্রথম স্ত্রী আত্মহত্যা করেছেন বলে জানা গেছে।

Related Articles

পুনর্গঠিত হলো বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগ

সভাপতি আলহাজ্জ্ব ফেরদৌস স্বাধীন ফিরোজ : সাধারণ সম্পাদক এড. মো: ফারুক উজ্জামান ভূইয়া টিপু আকাশ বাবু:বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একটি রাজনৈতিক সহযোগী সংগঠন মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক স্বাধীন...

Rajpath Bichtra E-Paper: 20/10/2021

Rajpath Bichtra E-Paper: 20/10/2021

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের ৫৭তম বিবাহ বার্ষিকী আজ

আজ (৪ অক্টোবর) বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের ৫৭তম বিবাহ বার্ষিকী। ১৯৬৪ সালে আজকের এই দিনে রাশিদা খানমের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

22,042FansLike
0FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles

পুনর্গঠিত হলো বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগ

সভাপতি আলহাজ্জ্ব ফেরদৌস স্বাধীন ফিরোজ : সাধারণ সম্পাদক এড. মো: ফারুক উজ্জামান ভূইয়া টিপু আকাশ বাবু:বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একটি রাজনৈতিক সহযোগী সংগঠন মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক স্বাধীন...

Rajpath Bichtra E-Paper: 20/10/2021

Rajpath Bichtra E-Paper: 20/10/2021

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের ৫৭তম বিবাহ বার্ষিকী আজ

আজ (৪ অক্টোবর) বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের ৫৭তম বিবাহ বার্ষিকী। ১৯৬৪ সালে আজকের এই দিনে রাশিদা খানমের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন...

‘আইএমইডি’র নিবিড় পরিবীক্ষণ প্রতিবেদন করোনা দূর্যোগেও ব্যাপক সাফল্য পেয়েছে ‘জলাশয় সংস্কারের মাধ্যমে মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্প’

তিন দশকে দেশে মাছের উৎপাদন বেড়েছে ২৫ গুণজাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৩ সালে গণভবন লেকে আনুষ্ঠানিকভাবে মাছের পোনা অবমুক্ত করে মৎস্য চাষকে...

Rajpath Bichitra E-Paper 28/09/2021

Rajpath Bichitra E-Paper 28/09/2021