Monday, September 20, 2021

ঢাকা-১৮ আসনে নৌকার মাঝি সমাজসেবক হাবিব হাসান

 

আলিম-আল রাজী : ঢাকা-১৮ উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হাবিব হাসান। গত বুধবার সকালে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের তার সরকারি বাসভবনে ব্রিফিং কালে প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেন।
আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ড এই প্রার্থীকে চূড়ান্ত মনোনয়ন দিয়েছে। তাদের বিজয়ী করতে সকল ভেদাভেদ ভুলে মনোনয়ন বোর্ডের সিদ্ধান্ত মেনে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান ওবায়দুল কাদের।
ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ১ ও ১৭ নং ওয়ার্ড এবং দক্ষিণখান, খিলক্ষেত, তুরাগ, উত্তরা এবং উত্তরখান থানার এলাকা নিয়ে গঠিত ঢাকা-১৮ আসন। সংসদ সদস্য ও সাবেক সরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন গেল ৯ জুলাই বৃহস্পতিবার থাইল্যান্ডের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেলে আসনটি শূন্য হয়।

জনপ্রিয় নেতা আলহাজ্ব মোহাম্মদ হাবিব হাসান
মোহাম্মদ হাবিব হাসান মনোনয়ন পাওয়ায় খুশি দলের সর্বস্তরের নেতা/কর্মীরা। কারণ তিনি এলকায় একজন দানশীল ও সমাজসেবক হিসেবে পরিচিত। সবার সাথে হাস্যজ্জলভাবে কথা বলা, সবার সুখ দুঃখের কথা শুনা, অসহায় গরীব মানুষের পাশে দাড়ানো, এই বর্ষিয়ান ত্যাগী নেতা আলহাজ্ব মোঃ হাবিব হাসানের চরিত্রের অণ্যতম বৈশিষ্ট। তিনি বলেন, ‘মানুষ সারাজীবন বেঁচে থাকে না, তাহলে আমরা কেন হিংসা, বিদ্বেষ ছড়াবো? আল্লাহ আমাদেরকে এই দুনিয়া দিয়েছেন তার এবাদত করার জন্য, সমাজসেবা একটা বড় এবাদত। আমি তাই একজন সেবক হতে চাই।’
ঢাকা -১৮ নির্বাচনী আসনের রাজনৈতিক অঙ্গনে অতি পরিচিত নাম আলহাজ মোঃ হাবিব হাসান। গত ২ যুগেরও বেশি সময় ধরে তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সোনার বাংলা গড়তে জাতির জনকের কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। বিএনপি-জামাত (জোট) সরকারের শাসনামলে তিনি ছিলেন উত্তরার রাজপথের সামনের সারির একজন সৈনিক। এছাড়া ঢাকা মহানগরী বৃহত্তর উত্তরা থানা আওয়ামী লীগের প্রায় দেড় যুগ ধরে সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বও কর্তব্য নিষ্ঠার সাথে পালন করেন আলহাজ্ব মোঃ হাবিব হাসান।
দক্ষিণ এশিয়ার বাংলাদেশের সাবেক প্রথম মহিলা ও সফল স্বরাষ্টমন্ত্রী এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এডভোকেট সাহারা খাতুন এম.পির সাথে কাজ করেছেন এই বলিষ্ঠ জনপ্রিয় নেতা ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ হাবিব হাসান।
দলমত নির্বিশেষে প্রবীণ, ত্যাগী-নিবেদিত প্রাণ ও বর্ষিয়ান রাজনৈতিক নেতা আলহাজ্ব হাবিব হাসানকে এবার এমপি প্রার্থী হিসেবে পেয়ে ঢাকা-১৮ নির্বাচনী এলাকার সাধারণ মানুষ খুবই খুশি। রাজধানীর উত্তরায় বসবাসরত মানুষেরা মনে করে আলহাজ্ব হাবিব হাসান তাদের গৌরব, তাকে পেয়ে আমরা একজন যোগ্য অভিভাবক পেয়েছি।’আলহাজ্ব হাবিব হাসান সমাজসেবক হিসেবে যতটুকু পরিচিত, তার চেয়েও বেশি পরিচিত একজন দানশীল ব্যক্তি হিসেবে। নি¤েœ তার কিছু দান সেবামূলক কর্মকা-ের চিত্র তুলে ধরা হলোÑ

করোনাকালে ব্যক্তিগত সহায়তায় উপহার সামগ্রী বিতরণ
ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক হাবিব হাসান ঢাকা-১৮ আসন আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে করোনা ভাইরাস (কভিড-১৯) সংকটকালে মানবিক কল্যাণে গরীব ও অসহায়দের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ করেন। ৪৭নং ওয়ার্ড, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক এস.এম মাহাবুব আলমের বাসার সামনে হতে ৫০০পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়। যা হাবিব হাসান ব্যক্তিগত উদ্যোগে করেন। ত্রাণ বিতরণকারীরা জানান ‘সকলের প্রিয় নেতা হাবিব হাসান সাহেবের প্রেরিত ত্রাণ বিতরণ সবার জন্য উন্মুক্ত। কারণ মধ্যবিত্তরা লজ্জায় কারো কাছে চাইতে পারে না। তাদেরকে একটু সহায়তা করাই আমাদের মূল লক্ষ্য। সংকট শেষ না হওয়া পর্যন্ত আমাদের এই সহযোগিতা থাকবে, ইনশাআল্লাহ।’ ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক হাবিব হাসান একজন মানবতার প্রতীক হিসেবে পরিচিত,
সকলে প্রিয় নেতা ও ঢাকা মহানগর উত্তরের আওয়ামী লীগের কান্ডারী। তিনি মহানগর উত্তরের প্রায় সব ওয়ার্ডে উপহার সামগ্রী বিতরণ করেছেন।

তৃতীয় দফায় গরীবের পাশে হাবিব হাসান
রাজধানীর উত্তরায় বিভিন্ন সরকারি সহায়তার পাশাপাশি গরীব মানুষের মাঝে ব্যাক্তি পর্যায়ে অধিক খাদ্য সহায়তা নিয়ে সকলের নজর কাড়তে সক্ষম হয়েছিলেন উত্তরা দানশীল পরিবারের অন্যতম সদস্য আলহাজ্ব হাবিব হাসান। নিজ পিতা মাতার নামে প্রতিষ্ঠিত আছিরণ- লতিপ ফাউন্ডেশন এর উদ্যেগে তৃতীয় বারের মতো রাজধানীর দক্ষিণ খান এলাকায় ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন দাতব্য প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান হাবিব হাসান।
জানা যায়, হাবিব হাসানের পক্ষে রাজধানীর উত্তর সিটির ৪৭ নং ওয়ার্ড এলাকায় প্রায় ৫ শতাধিক পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন উত্তর আওয়ামী লীগের সাবেক ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক এস এম মাহবুব হোসেন, উত্তরা পূর্ব থানা আওয়ামী লীগের ত্রাণ সম্পাদক বাদলসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ।
উল্লেখ্য গত দেড় মাস থেকে ঢাকা-১৮ আসন এলাকায় ৯টি ওয়ার্ডে ব্যাপক ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছেন হাবিব হাসান। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের প্রায় শতাধিক স্বেচ্ছাসেবী বাহিনী এসব ত্রাণ বিতরণের কাজে নিয়োজিত ছিলেন।
এ বিষয়ে হাবিব হাসান বলেন, কোনও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে নয়, আল্লাহ আমাকে সামর্থ্য দিয়েছেন তাই গরীবের মুখে অনাহারে খাদ্য তুলে দেয়ার দায়িত্ববোধ থেকেই এ কাজ কওে গেছি। তাছাড়া মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আহবানে সাড়া দেওয়া আমাদের প্রত্যেকেরই নৈতিক দায়িত্ব। সেই দায়িত্ববোধ থেকে সবাইকে এগিয়ে আসারও আহবান জানিয়েছি।

ব্যক্তি পর্যায়ে বড় সহযোগিতা হাবিব হাসানের
রাজধানীর উত্তরায় বিভিন্ন সরকারি সহায়তার পাশাপাশি গরীব মানুষের মাঝে ব্যক্তি পর্যায়ে অধিক খাদ্য সহায়তা নিয়ে গরীব মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন উত্তরার ধনাঢ্য রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব আলহাজ হাবিব হাসান। ঢাকা-১৮ আসন এলাকায় করোনা দুর্যোগের প্রায় ১৫ দিন থেকে থেমে থেমে এ খাদ্য সহায়তা দিয়ে গেছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর আহবানে সাড়া দিয়ে তার এমন উদার হস্ত দান উত্তরার রাজনীতিতে বেশ আলোচিত। তার মত অন্য আরও অনেকে এমন সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছিলেন বলেই বৃহত্তর উত্তরায় সাধারণ মানুষের দৈনন্দিন খাদ্য চাহিদায় তেমন কোন খারাপ প্রভাব পড়েনি।
এ বিষয়ে হাবিব হাসান বলেন, কোনও রাজনৈতিক উদ্দেশে নয়, আল্লাহ আমাকে সামর্থ্য দিয়েছেন তাই পৃথিবী ব্যাপী চলা এ মাহামারিতে সাধারণ গরীবের মুখে অনাহারে খাদ্য তুলে দেয়া আমার দায়িত্ব বলেই মনে করি। আমার সহায়তার পাশাপাশি উত্তরায় অন্য আরও অনেকেই সহায়তা নিয়ে এগিয়ে এসেছে। এজন্য আমি সবাইকে ধন্যবাদ দিয়ে উৎসাহ যোগাই। খাদ্যের অভাবে কোনও মানুষ মারা যাবে এটা আমরা উত্তরাবাসী ইনশাল্লাহ হতে দিবো না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আহবানে সাড়া দিয়ে আমরা সকলে এমন সংকল্পই করতে চাই।

৮ হাজার পরিবারকে ৭ দিনের খাদ্য দান
নিজের ব্যাক্তিগত উদ্যেগে সরকার ঘোষিত লক-ডাউন সময়ে প্রায় ৮ হাজার পরিবারের মাঝে এক সপ্তাহের খাদ্যের যোগান দিয়েছিলেন তিনি। ঢাকা-১৮ আসন এলাকায় ১২ টি ওয়ার্ডের প্রায় সব ক’টিতে কমবেশি এ সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছিলেন তিনি। স্থানীয় কমিশনার ও বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যাক্তিবর্গের সাথে সমন্বয় করে তিনি এ খাদ্য সহায়তা দেন।
ঢাকা-১৮ আসনের বৃহত্তর উত্তরা তথা উত্তর খান, দক্ষিণ খান, উত্তরা পূর্ব, পশ্চিম ও তুরাগ থানা এলকাকে টার্গেট করে এ সহায়তা দেওয়া হয়েছে। তিনি জানান মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী আমার এলাকায় খেটে খাওয়া দিনমজুর শ্রেণির একটি লোকও যাতে না খেয়ে থাকে এজন্য আমিসহ উত্তরার অনেকেই এই ধরণের সহযোগিতা নিয়ে কাজ করেছি। তিনি বলেন ‘বিশ্বজুয়ে করোনা ভাইরাস মহামারী আকার ধারণ করায় সার্বিক অর্থনৈতিক কার্যক্রমে প্রায় স্থবির হয়ে গিয়েছিল। করোনার এ মহামারী ঠেকাতে পৃথিবীর প্রায় দেশে এখন চলেছে লক-ডাউন পরিস্থিতি। বাংলাদেশও এ অবস্থার বাইরে নয়। পৃথিবীর অন্য যে কোনও দেশের তুলনায় এখানে দিন রোজগারী লোকের সংখ্যা অনেক বেশি। রাজধানীর উত্তরের এ অংশে সবচেয়ে বেশি ছিন্নমুল মানুষের বসবাস। লক-ডাউন পরিস্থিতিতে দিনমজুর এসব মানুষের খাদ্য সংঙ্কট এখন ছিল প্রকট। এ অবস্থায় সমাজের বিত্তবান বিভিন্ন শ্রেণির মানুষ সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে সাধারণ রোজগারীদের প্রতি।

দুঃস্থদের রিকশা দিলেন হাবিব হাসান
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন উপলক্ষে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা-১৮ আসনের উপ-নির্বাচনে নৌকার মাঝি মোহাম্মদ হাবিব হাসান দঃুস্থদের মধ্যে রিকশা বিতরণ করেছেন। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনায় দোয়া করা হয়।
জন্মদিন উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে তিনি দুঃস্থ ও অসহায় মানুষের সহায়তায় ২০টি রিকশা বিতরণ করেন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রবীণ সাংবাদিক ও প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরীসহ বিভিন্ন ওয়ার্ড কাউন্সিলর, থানার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ নগর নেতারা।
যৌথভাবে সভা পরিচালনায় ছিলেন সাইদ সিদ্দিকী কাক্কা, সাধারণ সম্পাদক উত্তরা পশ্চিম থানা আওয়ামী লীগ ও মহসিন সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক দক্ষিণখান থানা আওয়ামী লীগ।

হাবিব হাসানের প্রত্যাশা
শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের জন্য এ এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন সবচেয়ে জরুরি। তাই মাস্টারপ্ল্যান করে ভবিষ্যতে জনপ্রতিনিধি হয়ে কাজ করার ইচ্ছা ব্যক্ত করেন তিনি।
মোহাম্মদ হাবিব হাসান বলেন, দীর্ঘ ৩৫ বছরের রাজনৈতিক জীবনে বেশিরভাগ সময়ই আমি বিরোধী দলে ছিলাম। জেল-জুলুম ও অগণিত হামলা মামলা নির্যাতন সবসময় আমার সঙ্গী ছিল। ১/১১-এর সময় নেত্রীর মুক্তির আন্দোলনের সময় একক ভূমিকায় স্থানীয় নেতাদের নিয়ে নগর ও কেন্দ্রের ঘোষিত সব কর্মসূচি বাস্তবায়ন করি।
ছাত্রলীগের রাজনীতির মাধ্যমে রাজনীতির হাতেখড়ি। আমি ঢাকা-১৮ আসনের স্থানীয় বাসিন্দা হওয়ায় ঢাকা-১৮ আসনে প্রতিটি এলাকায় আমার পদচারণা ও মানুষের সঙ্গে গভীর সম্পর্ক রয়েছে। এছাড়া এ নির্বাচনী এলাকার স্থানীয় জনসাধারণ তাদের সমস্যা সমাধানে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি চায়। যেহেতু আমি ঢাকা-১৮ আসনের স্থানীয় বাসিন্দা তাই এ এলাকায় আমার আত্মীয়তার বলয়টা অনেক বড়। যা এই আসনে আমার জয়ের ব্যাপারে নিয়ামক ভূমিকা পালন করবে।
আমার নির্বাচনী এলাকায় সর্বস্তরের জনগণের পাশে প্রত্যেকটি সামাজিক ও সেবামূলক প্রতিষ্ঠান এবং আওয়ামী লীগের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে আমার গভীর সম্পর্ক রয়েছে। দীর্ঘদিন আমি এই এলাকার মানুষের সেবায় কাজ করে যাচ্ছি। নির্বাচিত হলে জননেত্রী শেখ হাসিনার অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রার সৈনিক হিসেবে কাজ করতে পারবো বলে আশা রাখি।

Related Articles

ধারাবাহিক : পলাশ রাঙা দিন

নুসরাত রীপা পর্ব-১৬ তুলির বিয়েতে মীরা আসবে না শুনে বিজুর খুব মন খারাপ । মীরাকে মায়ের কলিজা বলে মা কে ক্ষ্যাপালেও মীরাকে ও আপন বোনের মতোই...

প্রকৃতিকন্যা সিলেট- নয়নাভিরাম রাতারগুল

মিলু কাশেম অপরূপ প্রকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি আমাদের বাংলাদেশ।নদ নদী পাহাড় পর্বত হাওর বাওর সমুদ্র সৈকত প্রবাল দ্বিপ ম্যানগ্রোভ বন জলজ বন চা বাগানসহ পর্যটনের নানা...

হাওড়ে প্রেসিডেন্ট রিসোর্টের জমকালো উদ্বোধন

দুই নায়িকা নিয়ে জায়েদ খান মিশা ডিপজল রুবেল হেলিকপ্টারে চড়ে কিশোরগঞ্জের মিঠামইন হাওরে প্রেসিডেন্ট রিসোর্ট উদ্বোধন করতে এসেছিলেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান, জনপ্রিয় খল অভিনেতা মিশা...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

22,042FansLike
0FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles

ধারাবাহিক : পলাশ রাঙা দিন

নুসরাত রীপা পর্ব-১৬ তুলির বিয়েতে মীরা আসবে না শুনে বিজুর খুব মন খারাপ । মীরাকে মায়ের কলিজা বলে মা কে ক্ষ্যাপালেও মীরাকে ও আপন বোনের মতোই...

প্রকৃতিকন্যা সিলেট- নয়নাভিরাম রাতারগুল

মিলু কাশেম অপরূপ প্রকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি আমাদের বাংলাদেশ।নদ নদী পাহাড় পর্বত হাওর বাওর সমুদ্র সৈকত প্রবাল দ্বিপ ম্যানগ্রোভ বন জলজ বন চা বাগানসহ পর্যটনের নানা...

হাওড়ে প্রেসিডেন্ট রিসোর্টের জমকালো উদ্বোধন

দুই নায়িকা নিয়ে জায়েদ খান মিশা ডিপজল রুবেল হেলিকপ্টারে চড়ে কিশোরগঞ্জের মিঠামইন হাওরে প্রেসিডেন্ট রিসোর্ট উদ্বোধন করতে এসেছিলেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান, জনপ্রিয় খল অভিনেতা মিশা...

মৎস্য খাতে অর্জিত সাফল্য ও টেকসই উন্নয়ন

ড. ইয়াহিয়া মাহমুদমৎস্যখাতের অবদান আজ সর্বজনস্বীকৃত। মোট দেশজ উৎপাদন বা জিডিপিতে মৎস্য খাতের অবদান ৩.৫০ শতাংশ এবং কৃষিজ জিডিপিতে ২৫.৭২ শতাংশ। আমাদের দৈনন্দিন খাদ্যে...

জলাশয় সংস্কারের মাধ্যমে মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে বহুগুণ

মৎস্য উৎপাদনে যুগান্তকারী সাফল্য অর্জন করেছে বাংলাদেশ। পরিকল্পনা মাফিক যুগোপযোগী প্রকল্প গ্রহণ করায় এই সাফল্য এসেছে। মাছ উৎপাদন বৃদ্ধির হারে সর্বকালের রেকর্ড ভেঙেছে বাংলাদেশ।...