Thursday, September 23, 2021

ঘুষের টাকা ফেরত দেবেন সরকারি কর্মকর্তা

ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি

সরকারি চাকরি দেয়ার নামে নেয়া ৩০ লক্ষ টাকার আংশিক ফেরত দিতে রাজি হয়েছেন পাবনার ভাঙ্গুড়ায় উপজেলা হিসাবরক্ষণ অফিসের নিরীক্ষণ কর্মকর্তা আনছার আলী। বুধবার গভীর রাত পর্যন্ত আনছার আলীর নিজ গ্রাম উপজেলার পাথরঘাটায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও গ্রামবাসীদের উপস্থিতিতে এক সালিশ বৈঠকে ভুক্তভোগীদের এই টাকা ফেরত দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এতে ভুক্তভোগীদের পরিবারের মধ্যে কিছুটা হলেও স্বস্তি ফিরে এসেছে। আগামী এক হপ্তাহের মধ্যে এই টাকা সবাইকে ফেরত দেওয়া হবে।
খোঁজ নিয়ে যায়, ভাঙ্গুড়া উপজেলা হিসাবরক্ষণ অফিসের নিরীক্ষণ কর্মকর্তা আনছার আলী ও যুব উন্নয়ন অফিসের অফিস সহকারী আবু সাঈদ ঢাকার একটি চক্রের সঙ্গে হাত মিলিয়ে গত বছরের জুনে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের পাঁচজন যুবকের কাছ থেকে সরকারি চাকরি দেওয়ার কথা বলে প্রায় ২০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়। পরে সকলেই চাকরিতে যোগদান করতে গিয়ে ভুয়া নিয়োগপত্র নিয়ে প্রতারণার শিকার হন। এরপর থেকে দুইজন চাকরিপ্রার্থী আনছার আলী ও আবু সাঈদকে ধরপাকড় করে ওই চক্রের কাছ থেকে প্রদানকৃত অধিকাংশ টাকা তুলে নেন। পরে পাবনার সুজানগর উপজেলার বাসিন্দা আবু সাঈদ বদলি নিয়ে অন্যত্র চলে যান।
কিন্তু উপজেলার পাথরঘাটা গ্রামের আফসার আলীর ছেলে রাজিউল ইসলামের কাছ থেকে ৫ লাখ টাকা নেওয়ার কথা অস্বীকার করেন আনছার আলী। এতে রাজিউলের পরিবার গত ছয় মাস আগে ওই কর্মকর্তার বাড়ি ঘেরাও করে এবং গত সপ্তাহে বাড়ির সামনের সড়কে পথরোধ করে লাঞ্ছিত করে। এনিয়ে দৈনিক মানবজমিনে একাধিকবার সংবাদ প্রকাশ হয়। টাকা না দেয়ায় এমন সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে বলে প্রচার ঐ সময় প্রচার করে এই প্রতারক। এ অবস্থায় গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিরা পারভাঙ্গুড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হেদায়েতুল হক ও ভাঙ্গুড়া পৌর মেয়র গোলাম হাসনাইন রাসেলের মধ্যস্থতায় বিষয়টি সমাধানের জন্য উদ্যোগ নেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার গভীর রাত পর্যন্ত একটি সালিশ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সালিশে রাজিউল ইসলামকে পাঁচ লাখ টাকার মধ্যে তিন লাখ টাকা আনছার আলী ফেরত দেবেন বলে সিদ্ধান্ত হয়। এছাড়া অপর ভুক্তভোগী একই গ্রামের ইমরান হোসেনের ছেলে সবুজকে অবশিষ্ট ২ লাখ টাকার মধ্যে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা এবং চাটমোহরের সমাজ গ্রামের বাসিন্দা রিপন নামে আরেকজনকে তিন লাখের মধ্যে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা আনছার আলী ফেরত দিবেন বলে সিদ্ধান্ত হয় ওই বৈঠকে। অবশিষ্ট টাকা মওকুফ করা হয়।

টাকা ফেরত পেয়ে রাজিউল ইসলামের বড় ভাই সোহাগ আলী জানান, প্রথমে কর্মকর্তা আনছার আলী টাকা নেওয়ার বিষয়টি সম্পূর্ণভাবে অস্বীকার করে। তখন বাধ্য হয়ে আমাদের পরিবারের পক্ষ থেকে তাকে নানা প্রকার চাপ দেওয়া হয়। এ নিয়ে একাধিকবার আপত্তিকর ঘটনাও ঘটে যায় ওই কর্মকর্তার সাথে। অবশেষে সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে পাঁচ লাখ টাকার মধ্যে তিন লাখ টাকা ফেরত পেয়েছি। এখন কিছুটা স্বস্তি ফিরে এসেছে পরিবারে।

সালিশকারী ভাঙ্গুড়া পৌর মেয়র গোলাম হাসনাইন রাসেল বলেন, চাকরিপ্রার্থীরা একদিকে চাকরি পায়নি, অন্যদিকে টাকাও হারাতে বসেছিল। এ নিয়ে ভুক্তভোগীদের সাথে ওই কর্মকর্তার একাধিকবার অনাকাক্সিক্ষত ঘটনা ঘটে। তাই শান্তির লক্ষ্যে সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে চাকরিপ্রার্থীদের দেয়া বেশির ভাগ টাকা ফেরত দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

Related Articles

ধারাবাহিক : পলাশ রাঙা দিন

নুসরাত রীপা পর্ব-১৬ তুলির বিয়েতে মীরা আসবে না শুনে বিজুর খুব মন খারাপ । মীরাকে মায়ের কলিজা বলে মা কে ক্ষ্যাপালেও মীরাকে ও আপন বোনের মতোই...

প্রকৃতিকন্যা সিলেট- নয়নাভিরাম রাতারগুল

মিলু কাশেম অপরূপ প্রকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি আমাদের বাংলাদেশ।নদ নদী পাহাড় পর্বত হাওর বাওর সমুদ্র সৈকত প্রবাল দ্বিপ ম্যানগ্রোভ বন জলজ বন চা বাগানসহ পর্যটনের নানা...

হাওড়ে প্রেসিডেন্ট রিসোর্টের জমকালো উদ্বোধন

দুই নায়িকা নিয়ে জায়েদ খান মিশা ডিপজল রুবেল হেলিকপ্টারে চড়ে কিশোরগঞ্জের মিঠামইন হাওরে প্রেসিডেন্ট রিসোর্ট উদ্বোধন করতে এসেছিলেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান, জনপ্রিয় খল অভিনেতা মিশা...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

22,042FansLike
0FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles

ধারাবাহিক : পলাশ রাঙা দিন

নুসরাত রীপা পর্ব-১৬ তুলির বিয়েতে মীরা আসবে না শুনে বিজুর খুব মন খারাপ । মীরাকে মায়ের কলিজা বলে মা কে ক্ষ্যাপালেও মীরাকে ও আপন বোনের মতোই...

প্রকৃতিকন্যা সিলেট- নয়নাভিরাম রাতারগুল

মিলু কাশেম অপরূপ প্রকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি আমাদের বাংলাদেশ।নদ নদী পাহাড় পর্বত হাওর বাওর সমুদ্র সৈকত প্রবাল দ্বিপ ম্যানগ্রোভ বন জলজ বন চা বাগানসহ পর্যটনের নানা...

হাওড়ে প্রেসিডেন্ট রিসোর্টের জমকালো উদ্বোধন

দুই নায়িকা নিয়ে জায়েদ খান মিশা ডিপজল রুবেল হেলিকপ্টারে চড়ে কিশোরগঞ্জের মিঠামইন হাওরে প্রেসিডেন্ট রিসোর্ট উদ্বোধন করতে এসেছিলেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান, জনপ্রিয় খল অভিনেতা মিশা...

মৎস্য খাতে অর্জিত সাফল্য ও টেকসই উন্নয়ন

ড. ইয়াহিয়া মাহমুদমৎস্যখাতের অবদান আজ সর্বজনস্বীকৃত। মোট দেশজ উৎপাদন বা জিডিপিতে মৎস্য খাতের অবদান ৩.৫০ শতাংশ এবং কৃষিজ জিডিপিতে ২৫.৭২ শতাংশ। আমাদের দৈনন্দিন খাদ্যে...

জলাশয় সংস্কারের মাধ্যমে মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে বহুগুণ

মৎস্য উৎপাদনে যুগান্তকারী সাফল্য অর্জন করেছে বাংলাদেশ। পরিকল্পনা মাফিক যুগোপযোগী প্রকল্প গ্রহণ করায় এই সাফল্য এসেছে। মাছ উৎপাদন বৃদ্ধির হারে সর্বকালের রেকর্ড ভেঙেছে বাংলাদেশ।...