Saturday, January 22, 2022

কুয়েতে মানব পাচারকারী আমির গ্রেপ্তার

কুয়েতে মানব পাচারের দায়ে আমির হোসেন ওরফে সিরাজউদ্দীনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। মানব পাচারের দায়ে কুয়েতের আদালত দেশটির একজন নাগরিক ও তিন বাংলাদেশিকে কারাদণ্ড দেন। আমির তাদের একজন। সিআইডির এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।
সিআইডি জানায়, বিদেশি একটি গোয়েন্দা সংস্থার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে তারা আমির হোসেনকে গ্রেপ্তার করে। কুয়েত কর্তৃপক্ষের চোখ এড়িয়ে তিনি ও তার সহযোগীরা বাংলাদেশে পালিয়ে আসেন। আমির দেড় বছর ধরেই নরসিংদীতে তার বাড়িতে ছিলেন। সেখান থেকেই ১৭ আগস্ট তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে সিআইডি জানায়, চারজন ‘কুখ্যাত’ মানব পাচারকারী দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশ থেকে মানব পাচার করে আসছিল।
এ চক্রের সদস্যদের হাতে ৯০০–এরও বেশি ব্যক্তি পাচারের শিকার হন। তারা একেকজনের কাছ থেকে ৬ লাখ টাকা বা তার চেয়েও বেশি টাকা আদায় করে। পাচারের শিকার ব্যক্তিদের মোটা বেতনের লোভ দেখিয়ে কুয়েতে নিয়ে গিয়ে নির্যাতন চালাচ্ছিল পাচারকারীরা। প্রতারিত বাংলাদেশি নাগরিকেরা কুয়েতে কোনো কাজের সন্ধান পাননি। সেখানে থাকা-খাওয়ার মারাত্মক সংকটে পড়ে উদ্বাস্তু অবস্থায় কুয়েতের রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে বেড়াতে হয় তাদের। কাউকে কাউকে আবার তারা বন্দীও করে রাখে।

কুয়েত কর্তৃপক্ষ জানায়, পাচারকারীরা জালিয়াতির মাধ্যমে কুয়েতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে ভিসা নেয় বলেও নিশ্চিত হয়েছে তারা। এর মধ্যে পাচারের শিকার কয়েকজন কুয়েতের সরকারি এজেন্সি ও জনশক্তি কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করলে তারা বিষয়টি তদন্ত শুরু করে। তদন্তে চক্রটির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে কুয়েতের আদালতে বেশ কয়েকটি মামলা করা হয়। পরবর্তী সময়ে এ চক্রের চার সদস্যের (একজন কুয়েতের ও তিনজন বাংলাদেশি) বিরুদ্ধে কুয়েতের আদালত অভিযোগ আমলে নেন। আদালত তাদের তিন বাংলাদেশিকে তিন বছর কারাদণ্ড, অর্থদণ্ডসহ বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেন। এ চক্রের অন্যতম সদস্য জনৈক কুয়েতের নাগরিক ছয় বছরের সাজা পেয়ে কারাগারে আছেন। তবে বাংলাদেশিরা যেকোনো উপায়ে দেশে পালিয়ে আসতে সক্ষম হয়।

সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রাজীব ফারহান বলেন, ৩০ বছর আগে গলাকাটা পাসপোর্টে আমির হোসেন নামের একজন কুয়েতে যান। আদতে তার নাম সিরাজউদ্দীন। কুয়েতের আদালত কারাদণ্ড দিলে কর্তৃপক্ষের চোখ ফাঁকি দিয়ে দেড় বছর আগে বাংলাদেশে চলে আসেন। নরসিংদীর বাড়িতে দিব্যি ছিলেন। এলাকায় তার বেশ প্রভাব প্রতিপত্তিও আছে। তিনি যে মানব পাচারের দায়ে কারাদণ্ডপ্রাপ্ত, সেটা এলাকার লোক বিশ্বাস করেন না। তাকে গ্রেপ্তার করতে গিয়ে সিআইডিকে এলাকার লোকজনের বাধার মুখেও পড়তে হয়।

Related Articles

পুনর্গঠিত হলো বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগ

সভাপতি আলহাজ্জ্ব ফেরদৌস স্বাধীন ফিরোজ : সাধারণ সম্পাদক এড. মো: ফারুক উজ্জামান ভূইয়া টিপু আকাশ বাবু:বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একটি রাজনৈতিক সহযোগী সংগঠন মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক স্বাধীন...

Rajpath Bichtra E-Paper: 20/10/2021

Rajpath Bichtra E-Paper: 20/10/2021

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

22,042FansLike
0FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles

পুনর্গঠিত হলো বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগ

সভাপতি আলহাজ্জ্ব ফেরদৌস স্বাধীন ফিরোজ : সাধারণ সম্পাদক এড. মো: ফারুক উজ্জামান ভূইয়া টিপু আকাশ বাবু:বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একটি রাজনৈতিক সহযোগী সংগঠন মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক স্বাধীন...

Rajpath Bichtra E-Paper: 20/10/2021

Rajpath Bichtra E-Paper: 20/10/2021

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের ৫৭তম বিবাহ বার্ষিকী আজ

আজ (৪ অক্টোবর) বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের ৫৭তম বিবাহ বার্ষিকী। ১৯৬৪ সালে আজকের এই দিনে রাশিদা খানমের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন...

‘আইএমইডি’র নিবিড় পরিবীক্ষণ প্রতিবেদন করোনা দূর্যোগেও ব্যাপক সাফল্য পেয়েছে ‘জলাশয় সংস্কারের মাধ্যমে মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্প’

তিন দশকে দেশে মাছের উৎপাদন বেড়েছে ২৫ গুণজাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৩ সালে গণভবন লেকে আনুষ্ঠানিকভাবে মাছের পোনা অবমুক্ত করে মৎস্য চাষকে...